মাংকিপক্স কি এবং এর ঝুঁকি কতটুকু?

Share

আফ্রিকায় মাংকিপক্স এর একাধিক সংক্রমণ পর্যবেক্ষণ করেছেন এমন বিজ্ঞানীরা বলছেন যে, সাম্প্রতিক সময়ে ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকায় রোগটি ছড়িয়ে পড়ার ঘটনায় তারা বিস্মিত।

গুটিবসন্তের সাথে সম্পর্কিত রোগটি মধ্য বা পশ্চিম আফ্রিকার সাথে যোগাযোগ রয়েছে, শুধুমাত্র এমন মানুষদের মধ্যেই এর আগে দেখা গিয়েছিল। কিন্তু গত সপ্তাহে ব্রিটেন, স্পেন, পর্তুগাল, ইতালী, যুক্তরাষ্ট্র, সুইডেন এবং কানাডা নিজেদের দেশে সংক্রমণের খবর জানায়। আক্রান্তদের বেশিরভাগই তরুণ পুরুষ, যারা তার আগে আফ্রিকায় যাতায়াত করেননি।

ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম এবং অস্ট্রেলিয়া শুক্রবার তাদের দেশে প্রথম সংক্রমণের তথ্য নিশ্চিত করে।

আমেরিকান সোসাইটি অফ ট্রপিকাল মেডিসিন অ্যান্ড হাইজিন এর ড. ড্যানিয়েল বশ বলেন, “আরও সংক্রমিত এলাকা থাকতে পারে, তবে হাজার হাজার রোগী মাংকিপক্সে সংক্রমিত হওয়ার মত ঘটনা ঘটবে না। এটা সাধারণ মানুষের চিন্তিত হওয়ার মত কোন বিষয় না।”

এখনও পর্যন্ত সংক্রমণে কারও মৃত্যু হয়নি। সাধারণত, মাংকিপক্সের কারণে জ্বর দেখা দেয়, শরীর কাপুনি দেয়, ফুসকুড়ি উঠে এবং চেহারা বা যৌনাঙ্গে ক্ষত সৃষ্টি হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) অনুমান করছে যে, রোগটি প্রতি ১০ জনে ১ জনের জন্য প্রাণঘাতী হতে পারে। তবে গুটিবসন্তের টিকা এই রোগের বিরুদ্ধে সুরক্ষা দেয় এবং এর জন্য কিছু সংক্রমণ-প্রতিরোধক ওষুধ তৈরি করা হচ্ছে।

যৌন মিলনের কারণে রোগটি ছড়াচ্ছে কিনা, তা খতিয়ে দেখছেন ব্রিটেনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। সম্ভাব্য রোগীর খোঁজে ডাক্তার এবং নার্সদের সতর্ক দৃষ্টি রাখতে বলেছেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। তবে, তারা এও বলেছেন যে, জনসাধারণের মধ্যে রোগটি ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা কম। দ্য ইউরোপিয়ান সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন সুপারিশ করেছে যে, সকল সম্ভাব্য রোগীকে যেন আইসোলেশনে রাখা হয় এবং আক্রান্ত হওয়ার বেশি ঝুঁকিতে থাকা মানুষজনকে যাতে গুটিবসন্তের টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়।

Leave A Reply