রংপুরে ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতের দাবি কৃষকের মহাসড়কে আলু ফেলে প্রতিবাদ

Share

আলুর ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত ও বিদেশে রফতানির দাবিতে রংপুর মহানগরীর সাতমাথায় মহাসড়কে আলু ফেলে প্রতিবাদ জানিয়েছেন চাষীরা। গতকাল দুপুরে মহাসড়কে আলু ফেলে অবরোধ করেন চাষীরা। এ সময় রংপুর-কুড়িগ্রাম আঞ্চলিক মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। চাষীদের অভিযোগ,  উৎপাদন খরচ বেশি হওয়ায় এবার প্রতি কেজি আলু আবাদে খরচ হয়েছে ১১-১২ টাকা। কিন্তু মাঠ পর্যায়ে প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮-৯ টাকায়। এতে তারা লোকসানের মুখে পড়েছেন। বিদেশে রফতানি করার সুযোগ তৈরি হলে এ লোকসান থেকে রক্ষা পাবেন তারা। প্রায় ১ ঘণ্টা পর পুলিশ এসে তাদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

অবরোধে অংশ নেয়া কৃষক শহিদ মিয়া জানান, এক বিঘা জমিতে আলু আবাদ করতে প্রায় ২৫ হাজার টাকা খরচ হয়েছে তার। দাম কমে যাওয়ায় এখন আলু বিক্রি করে আসল দাম তুলতে পারছেন না। এজন্য ক্ষোভে রাস্তায় আলু ফেলে দিয়ে প্রতিবাদ করছেন। আরেকজন কৃষক আবু বকর সিদ্দিক বলেন, ভালো দাম পাওয়ার আশায় স্টোরে আলু রাখতে গেলেও সেখানে ভাড়া বেশি হওয়ার কারণে লাভ হচ্ছে না। এ কারণে আলুর দাম বাড়ায় সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি। একই দাবিতে অবরোধ করেছেন কৃষক রাসেল মিয়া। তিনি বলেন, অবিলম্বে তাদের দাবি মানা না হলে কঠোর কর্মসূচি পালন করতে তারা বাধ্য হবেন।

রংপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি মো. মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটু বলেন, সাধারণত রমজান মাসে আলুর দাম কম থাকে। তিনিও চান আলু দেশের বাইরে রফতানির ব্যবস্থা হোক। এতে কৃষক লাভবান হবেন। এজন্য তিনি সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, জেলায় আলুর আবাদ হয়েছে ৫২ হাজার ৬৮০ হেক্টর জমিতে। আলুর উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৪ লাখ ৪৯ হাজার ৯৭২ মেট্রিক টন।

Leave A Reply