‘অবাধ্য’ হওয়ায় ইমরান খানকে শাস্তি দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র: রাশিয়া

Share

যুক্তরাষ্ট্রের অবাধ্য হওয়ায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে শাস্তি দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। এক বিবৃতিতে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা এমন দাবি করেছেন। পাকিস্তানের রাজনৈতিক অস্থিরতার বিষয়টি রাশিয়া অবগত রয়েছে বলে জানিয়ে তিনি বলেন, ইউক্রেন যুদ্ধের সময় মস্কো সফর করায় ইমরান খানকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিতে চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এ খবর দিয়েছে ডন।

জাখারোভা বলেন, গত ২৩শে ফেব্রুয়ারি ইমরান খানের মস্কো সফরের ঘোষণা আসার পরপরই এটি বাতিলে চাপ দিতে থাকে যুক্তরাষ্ট্র ও তার পশ্চিমা সহযোগীরা। তারা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর ওপরে কঠিন চাপ দিয়েছে। কিন্তু তারপরেও যখন তিনি রাশিয়া সফর করেন তখন মার্কিন কূটনীতিক ডনাল্ড লু যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত পাক রাষ্ট্রদূতকে তলব করেন এবং তাৎক্ষনিকভাবে ইমরান খানকে রাশিয়া ছেড়ে চলে আসার দাবি জানান। কিন্তু এমন দাবি প্রত্যাখ্যান করা হয় পাকিস্তানের পক্ষ থেকে। এরপরই ৭ই মার্চ পাক রাষ্ট্রদূত আসাদ মজিদের সঙ্গে বৈঠক করেন ডনাল্ড লু।

বৈঠকে তিনি ইমরান খানের ওই সফরের নিন্দা জানান এবং বলেন, শুধুমাত্র ইমরান খানকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিতে পারলেই পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা সম্ভব।

রুশ মুখপাত্র আরও বলেন, পাকিস্তানের বর্তমান রাজনৈতিক সংকটই বলে দিচ্ছে যে, ইমরানের এই অবাধ্যতার শাস্তিই দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের অন্য দেশের মধ্যেকার বিষয়ে হস্তক্ষেপকে নির্লজ্জ্ব বলে আখ্যায়িত করেন। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বারবার দাবি করেছেন, তার বিরুদ্ধে যে ‘ষড়যন্ত্র’ হচ্ছে তা বিদেশ থেকে পরিচালিত হচ্ছে। পাকিস্তানের আগামি নির্বাচনের পূর্বে দেশটির ভোটাররা এই ঘটনা জানতে পারবে বলেও আশা প্রকাশ করেন জাখারোভা।

Leave A Reply