প্রেসিডেন্ট বাইডেনসহ শীর্ষ মার্কিন কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে রাশিয়ার নিষেধাজ্ঞা

Share
প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনসহ যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ কর্মকর্তাদের টার্গেট করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে রাশিয়া। এই নিষেধাজ্ঞার তালিকায় রয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন, প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেক সালিভান এবং সিআইএ প্রধান উইলিয়াম বার্নস। মূলত যুক্তরাষ্ট্রে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনসহ রাশিয়ার শীর্ষ কর্মকর্তাদের কালো তালিকাভুক্ত করার পাল্টা জবাব হিসেবেই এই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে রাশিয়া। এই নিষেধাজ্ঞা ঘোষণার কারণে রাশিয়ার সঙ্গে পশ্চিমের বিদ্যমান উত্তেজনা আরও বৃদ্ধি পাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ খবর দিয়েছে সিএনএন।

খবরে জানানো হয়, মঙ্গলবার রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতিতে এই নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দেয়া হয়। তাদের তৈরি ওই ‘স্টপ লিস্টে’ রয়েছে অরাজনৈতিক ব্যাক্তিরাও। ১৩ জনের ওই তালিকায় রয়েছেন, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন এবং জো বাইডেনের ছেলে হান্টার বাইডেনও। অন্যান্যদের মধ্যে আছেন, মার্কিন সেনা প্রধান জেনারেল মার্ক মাইলি এবং হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র জেন সাকি।

নিষেধাজ্ঞার কারণে তালিকাভুক্ত এই ব্যাক্তিরা ভবিষ্যতে আর রাশিয়ায় প্রবেশ করতে পারবেন না। তবে রাশিয়ার ‘জাতীয় স্বার্থে’ ভবিষ্যতে মার্কিন কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করা হতে পারে। এছাড়া হুমকি দিয়ে বলা হয়েছে, সামনে আরও মার্কিন কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে। যেসব মার্কিন কর্মকর্তা, সাময়িক কর্মকর্তা, আইন-প্রণেতা, ব্যবসায়ী, বিশেষজ্ঞ এবং মিডিয়া ব্যক্তিত্ব রাশিয়ার বিরুদ্ধে ভীতি বা ঘৃণা ছড়ানোতে ভূমিকা রাখছেন তাদেরও কালো তালিকাভুক্ত করা হবে।

সিএনএন বলছে, রাশিয়ার এই নিষেধাজ্ঞাকে অনেকটা প্রতীকী হিসেবে দেখা হচ্ছে। কারণ শিগগিরই মার্কিন কর্মকর্তাদের রাশিয়া সফর করার সম্ভাবনা ছিল একদমই সীমিত। কারণ রাশিয়াকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েই দেশটিকে ইউক্রেন অভিযানের শাস্তি দিতে চায় পশ্চিমা দেশগুলো।
রাশিয়া এই সিদ্ধান্ত ঘোষণার আগে যুক্তরাষ্ট্র রুশ বেশ কজন সিনিয়র রুশ প্রতিরক্ষা কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দেয়। তাদের মধ্যে রাশিয়ার বেশ কজন উপমন্ত্রী এবং সরকারি একটি নিরাপত্তা বিষয়ক প্রতিষ্ঠানের মহাপরিচালক রয়েছেন। কানাডাও নতুন করে ১৫ জন সিনিয়র রুশ কর্মকর্তাকে নিষেধাজ্ঞার তালিকায় ঢুকিয়েছে। ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং বৃটেনও রাশিয়ার ওপর আরেক দফা অর্থনৈতিক এবং বাণিজ্যিক নিষেধাজ্ঞার কথা ঘোষণা করেছে। এরফলে ইউরোপ থেকে রাশিয়ায় গাড়ি সহ বিলাসবহুল পণ্য রপ্তানি নিষিদ্ধ থাকবে।

এদিকে হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটার জেন সাকি জানিয়েছেন, রাশিয়ার এই নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের উপর তেমন প্রভাব ফেলবে না। মঙ্গলবার সাংবাদিকদের কাছে তিনি বলেন, আপনাদের মধ্যে কেউ নিশ্চই এটা শুনে বিস্মিত হবেন না যে, আমাদের কেউ রাশিয়া সফরে যাওয়ার পরিকল্পনা করছি না। আমাদের কারও রাশিয়ায় ব্যাংক একাউন্ট নেই, তাই তা বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও নেই। তবে রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি বা পরোক্ষাভাবে আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ এখনো আছে বলে মনে করেন জেন সাকি।

Leave A Reply