ইউক্রেন নিয়ে কূটনৈতিক আলোচনার পথ এখনো খোলা: রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত

Share
বিজ্ঞাপন

ভ্লাদিমির চিজোভ আরও বলেন, ইউক্রেন নিয়ে এখনো কূটনৈতিক আলোচনার পথ খোলা আছে। এ আলোচনায় সুফল আসতে পারে। তিনি বলেন, সমঝোতায় আসার জন্য যেকোনো আলোচনার ক্ষেত্রে ইউরোপে ন্যাটোর সম্প্রসারণ ইস্যুকেই গুরুত্ব দিচ্ছে রাশিয়া। তিনি বলেন, ‘আমরা বিষয়টি ভুলে যাব না এবং ভুলেও থাকতে পারব না। পাঁচ ধাপে এভাবে ন্যাটোর সম্প্রসারণ আমাদের কাছে অপ্রত্যাশিত।’

ইউক্রেন নিয়ে গত সোম ও মঙ্গলবার দফায় দফায় কূটনৈতিক তৎপরতার পর গতকাল বুধবার এমন মন্তব্য করলেন ইইউতে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ভ্লাদিমির চিজোভ।
যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা দেশগুলো বলছে, রাশিয়া ইউক্রেন সীমান্তে লক্ষাধিক সেনা মোতায়েন করেছে। যেকোনো সময় ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালাতে পারে।

তবে রাশিয়া বারবারই পশ্চিমাদের তোলা এ অভিযোগ অস্বীকার করছে এবং বলছে, ইউক্রেনে হামলা চালানোর কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই।

২০১৪ সালে ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় ক্রিমিয়া উপদ্বীপ দখল করে রাশিয়া। এর পর থেকে উত্তর ইউক্রেনে রাশিয়া-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে ইউক্রেনের সেনাদের লড়াই চলছে। এ লড়াইয়ে অন্তত ১৪ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। বিচ্ছিন্নতাবাদীরা অঞ্চলটির বিস্তীর্ণ এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নিয়েছে।

ইউক্রেন নিয়ে এমন উত্তেজনার মধ্যে রাশিয়ার বড় ধরনের সামরিক মহড়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। ইউক্রেনের উত্তর সীমান্ত লাগোয়া দেশ ও মিত্র বেলারুশের সঙ্গে রাশিয়ার ওই মহড়া আজ বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে, ১০ দিনের এই যৌথ সামরিক মহড়ায় রাশিয়ার ৩০ হাজার সেনা অংশ নেবেন।

বেলারুশে রাশিয়ার সামরিক মহড়া ইউক্রেন নিয়ে সংঘাতে ‘উত্তেজনা বাড়ানোর’ পদক্ষেপ হিসেবে উল্লেখ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি বলেছেন, চলমান উত্তেজনাকে আরও বাড়িয়েছে এ মহড়া।

সূত্র: প্রথম আলো

Leave A Reply