কুমিল্লায় অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার, আটক ৪

কুমিল্লার লালমাই উপজেলার মিতল্লা থেকে অপহরণের ১২ ঘন্টা পর স্কুলছাত্রীকে চট্টগ্রামের আন্দারমানিক থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ ওই সময় অপহরণকারী চক্রের চার সদস্যকেও গ্রেফতার করেছেন। বুধবার সকালে আটককৃতদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ ও অপহৃতার পরিবারের সাথে কথা বলে জানা যায়, লালমাই উপজেলার গৈয়ারভাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির একজন ছাত্রী (১৬) ১৫ জুন মঙ্গলবার সকাল অনুমান ৯.৩০টায় স্কুলে এ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে যাওয়ার সময় মিতল্লা নামক স্থান থেকে একটি মাইক্রোযোগে তাকে অপহরণ করা হয়। এই ঘটনায় অপহৃতার পিতা বাদী হয়ে বেলঘর দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম মেম্বার ও তার ছেলে হেলাল উদ্দিনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা কয়েকজনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার দুপুরে লালমাই থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের ৬/৭ ঘন্টার মধ্যেই প্রযুক্তির সহায়তায় লালমাই থানার সেকেন্ড অফিসার জীবন রায় চৌধুরীর নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম অভিযান পরিচালনা করে চট্টগ্রাম জেলার ভূজপুর থানাধীন দাঁতমারা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আওয়াতাধীন আন্দারমানিক গ্রামের জৈনিক আবদুল হান্নানের বসত ঘর থেকে অপহৃতাকে উদ্ধার করেন। ওই সময় পুলিশ লালমাই উপজেলার মিতল্লা গ্রামের রফিকুল ইসলাম মেম্বারের ছেলে হেলাল উদ্দিন (২৫), গৈয়ারভাঙ্গা গ্রামের হারুনুর রশিদের ছেলে মোঃ নাইম (২৪), তার স্ত্রী জান্নাত বেগম (১৯) ও উত্তড্ডা গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে মোঃ শাহ আলম (২৫) কে গ্রেপ্তার করেন।

অপহৃতার পিতা মোঃ ইমাম পুলিশের প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, আমার মেয়ে অনেক মেধাবী।
সে ৫ম ও ৮ম শ্রেণিতে এ প্লাস পেয়েছিল। অপহরণণের ১২ ঘন্টার মধ্যেই লালমাই থানা পুলিশ আমার মেয়েকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করেছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জীবন রায় চৌধুরী বলেন, অপহৃতাকে উদ্ধার ও আসামিদের গ্রেফতারে প্রযুক্তির পাশাপাশি দাঁতামারা তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ও আন্দারমানিক গ্রামের জৈনিক আবদুল হান্নান আমাদের সহযোগিতা করেছেন। বুধবার সকালে আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অপহৃতার স্বাস্থ্য পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আইয়ুব বলেন, অপহরণের ১২ ঘন্টার মধ্যেই প্রযুক্তির সহায়তায় চট্টগ্রাম জেলার ভূজপুর থানাধীন আন্দারমানিক গ্রাম থেকে অপহৃতা স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার এবং অপহরণকারী চক্রের চার সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।