ফিলিস্তিনে রক্তস্রোত বইয়ে দেয়ার প্রতিবাদে হাজার হাজার মানুষ ইসরাইলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন

নিউ ইয়র্ক থেকে লন্ডন। করাচি থেকে রাবাত। ফিলিস্তিনে রক্তস্রোত বইয়ে দেয়ার প্রতিবাদে হাজার হাজার মানুষ ইসরাইলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন। আজ বুধবার ভোরে ইসরাইলের বিমান হামলায় কমপক্ষে ৩৫ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। পক্ষান্তরে হামাসের রকেট হামলায় ৫ ইসরাইলি নিহত হয়েছে। সর্বশেষ যে পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে তা ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের হামাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ একটি যুদ্ধের দিকে যাচ্ছে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ। এমনকি মুসলিমদের কাছে তৃতীয় পবিত্র আল আকসা মসজিদে নামাজরত মুসল্লিদের বিরুদ্ধেও কয়েকদিনে কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট, স্টান গ্রেনেড ছুড়েছে ইসরাইলি বাহিনী। এর বিরুদ্ধে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিক্ষোভ হয়েছে।

এ সময় বিক্ষোভকারীদের হাতে দেখা গেছে ‘ফিলিস্তিন মুক্ত করো’ ‘ইসরাইল একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’ এবং ‘দখলদারিত্ব আর নয়’ লেখা ব্যানার। উল্লেখ্য, শেখ জারাহ থেকে ফিলিস্তিনিদের জোরপূর্বক উচ্ছেদ করেছে ইসরাইলিরা। কয়েক দশক ধরে সেখান থেকে ফিলিস্তিনিদের বহিষ্কার করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইহুদি বসতি স্থাপনকারীরা। এর প্রতিবাদ হচ্ছিল। কিন্তু জেরুজালেমের ওল্ড সিটিতে অবস্থিত আল আকসা মসজিদে ইসরাইলি পুলিশের ঝড়ো গতিতে প্রবেশ এবং দমনপীড়নের ফলে উত্তেজনা চরম আকার ধারণ করে। কয়েকদিনে তাদের নৃশংসতায় নামাজ আদায়রত কয়েক শত ফিলিস্তিনি ওই মসজিদে আহত হয়েছেন। এর প্রতিবাদে দখলীকৃত ভূখণ্ড এবং ইসরাইলের ভিতরেও বিক্ষোভ হয়েছে। এখানে ছবিতে ইসরাইলের নৃশংসতার প্রতিবাদ তুলে ধরা হলো-