২০ শে জুন করোনার মধ্যেই শ্রীলঙ্কায় নির্বাচন হতে যাচ্ছে

সাধারণ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে শ্রীলঙ্কা। করোনার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে সফল হয়েছে দেশটি। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামি ২০ জুনই অনুষ্ঠিত হচ্ছে নির্বাচন। এর আগে ২০ জুন থেকে নির্বাচন আরো পিছানোর দাবি জানিয়ে পিটিশন করা হয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। তবে তা খারিজ করে দেয়া হয়েছে। গত এপ্রিলের ২৫ তারিখ এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে তখনি কোভিড-১৯ মহামারি ছড়িয়ে পরতে শুরু করলে তা পিছিয়ে ২০ জুন নিয়ে আসা হয়। আদালত ২০ জুন নির্বাচনের পক্ষে রায় দেয়ায় এখন প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে শ্রীলঙ্কার নির্বাচন কমিশন।

ইতিমধ্যে তারা এর মহড়া দিয়েছে। এতে দেশের দক্ষিণাঞ্চলীয় উপকূলীয় এলাকার ২৫০ জন ভোটার অংশ নেন। ভোটাররা সামাজিক দূরত্ব মেনে, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার ও মাস্ক পরিধান করে ভোট দেন। ২০ জুন নির্বাচন আয়োজনের বিরুদ্ধে আপিলকারীদের মধ্যে ছিলো কলম্বোভিত্তিক থিঙ্কট্যাঙ্ক সেন্টার ফর পলিসি অল্টারনেটিভস, প্রবীণ সাংবাদিক ভিক্টর ইভান ও ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি (ইউএনপি)’র দলছুট গ্রুপ সামাজি জানা বালাবিজ্ঞ (এসজেবি)। তাদের বক্তব্যের সারমর্ম হলো করোনা লকডাউনের মধ্যে ২০ জুন নির্বাচন আয়োজন করা হলে তা বিরোধী দলের জন্য অন্যায্য হবে। লেভেল প্লেইং ফিল্ড তৈরি হবে না।

শ্রীলঙ্কার উত্তর ও পূর্বাঞ্চলে তামিল সংখ্যালঘুদের প্রতিনিধিত্বকারী তামিল ন্যাশনাল এলায়েন্সের সূত্র জানায়, এই করোনা পরিস্থিতির মধ্যে তারা কিভাবে জনসমাবেশ করবে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন। বর্তমান পরিস্থিতিতে নির্বাচনী প্রচারণা কাজে সর্বোচ্চ ৩০ জন ব্যক্তিকে নিয়ে বৈঠকের মতো পকেট সমাবেশ করা যাবে। তবে সংশ্লিষ্ট দলগুলোর নেতারা থাকলে বড় আকারের সমাবেশের অনুমতি দেয়া হবে। শ্রীলঙ্কায় করোনা আক্রান্ত সংখ্যা ১,৮০০ ছাড়িয়ে গেছে। সম্প্রতি যাদের দেহে করোনা পাওয়া গেছে তারা মূলত বিদেশ থেকে এসেছেন। এদের মধ্যে কুয়েত ও দুবাই থেকে আসা লোকজন বেশি।