শান্তিপূর্ণ পথে উত্তেজনা নিরসনে চীন-ভারত ঐকমত্য

লাদাখ সীমান্তে চীন-ভারত উত্তেজনা প্রশমনে দুই দেশের মধ্যে আলোচনা চলছে। শনিবার দুই দেশের শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠক শেষ হওয়ার পরদিন রবিবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ‘একাধিক দ্বিপাক্ষিক চুক্তির মাধ্যমে সীমান্ত এলাকায় উদ্ভূত পরিস্থিতির শান্তিপূর্ণ সমাধানে’ রাজি হয়েছে ভারত ও চীন। টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

লাদাখ নিয়ে চীন-ভারত বিরোধ পুরনো। গত ৫ মে সন্ধ্যায় প্রায় ২৫০ ভারতীয় ও চীনা সেনা সরাসরি সংঘাতে জড়িয়ে পড়লে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে পড়ে। পরে গত ৯ মে উত্তর সিকিমেও একই রকম ঘটনা ঘটে। চলমান উত্তেজনার এক পর্যায়ে ভারতের আলোচনার ডাকে সাড়া দেয় চীন। শুক্রবার দুই দেশের মধ্যে কূটনীতিক পর্যায়ের আলোচনার পর শনিবার সেনা পর্যায়ের আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

রবিবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘খুবই বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে এই আলোচনা সম্পন্ন হয়েছে। দু’দেশই শান্তিপূর্ণভাবে সীমান্ত সমস্যা মেটাতে রাজি হয়েছে। ভারত ও চীনের মধ্যে সীমান্ত নিয়ে যেসব দ্বিপাক্ষিক চুক্তি হয়েছে, সেইসব চুক্তির কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কারণ ইন্দো-চীন সীমান্ত এলাকা দু’দেশের মধ্যে সম্পর্কের উন্নয়নে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।’

ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘এই বছর ভারত ও চীনের মধ্যে শুরু হওয়া কূটনৈতিক সম্পর্কের ৭০ বছর হচ্ছে। তাই এই সম্পর্ক আগামী দিনে কীভাবে আরও এগিয়ে নেওয়া যায়, তা নিয়ে দু’দেশই আগ্রহী। নয়াদিল্লি ও বেইজিংয়ের তরফে দু’দেশের মধ্যে সমস্যার সমাধান করে সীমান্ত এলাকায় শান্তি ফেরানোর সব চেষ্টা করা হবে।’