ট্রাম্পের টাউন হল বক্তব্য ,করোনা: যুক্তরাষ্ট্রের মারা যেতে পারেন ১ লাখ, ভয়াবহ ভুল করেছে চীন

এবার স্বয়ং প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প পূর্বাভাষ দিলেন। তিনি বললেন, করোনা ভাইরাসে শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই মৃতের সংখ্যা এক লাখ দাঁড়াতে পারে। দুই ঘন্টার ভার্চুয়াল টাউন হল অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন। তবে তার প্রশাসন যে করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় অতি ধীরগতির পদক্ষেপ নিয়েছিল এমন অভিযোগ অস্বীকার করেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

উল্লেখ্য, এরই মধ্যে সরকারি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে এ রোগে মারা গেছেন কমপক্ষে ৬৭,০০০ মানুষ। এ অবস্থায় একটি টীকার বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ট্রাম্প। বলেছেন, তিনি আশা করছেন তা এ বছরের শেষ নাগাদ আসতে পারে।
যদিও বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, এতে এক থেকে দেড় বছর সময় লাগবে। টীকা আসার সময় নিয়ে ট্রাম্প যে মন্তব্য করেছেন তার সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রে সংক্রামক ব্যাধি বিষয়ক শীর্ষ বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্থনি ফাউসি এবং ইংল্যান্ডের প্রধান মেডিকেল কর্মকর্তা ক্রিস হুইটি। এর আগে ডা. ফাউসি বলেছিলেন, টীকা আসতে সময় লাগবে ১৮ মাস বা দেড় বছর। অন্যদিকে প্রফেসর হুইটি গত মাসে বলেছিলেন যে, আগামী বছরের প্রথম দিকে কার্যকর একটি টীকা আসার সম্ভাবনা খুবই কম।

উল্লেখ্য, ভার্চুয়াল টাউন হল অনুষ্ঠান অথবা দর্শকদের প্রশ্নের উত্তর দেয়ার অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছিল প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দ্বিতীয় দফায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণার শুরু হিসেবে। সেখানে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ার শুরুতে দ্রুততায় পদক্ষেপ নিতে তার প্রশাসন ব্যর্থ হয়েছে এমন অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন ট্রাম্প। এর পরিবর্তে তিনি করোনা ভাইরাসের বিস্তার থামাতে ব্যর্থতার জন্য চীনকে দায়ী করেন। তিনি বলেন, আমি মনে করি তারা (চীন) এক্ষেত্রে ভয়াবহ একটি ভুল করেছে। এখন তারা সেটা স্বীকার করতে চায় না। আমরা চীনে যেয়ে অনুসন্ধান করতে চাই। কিন্তু তারা আমাদেরকে একাজে সেখানে চায় না। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের কিছু গোয়েন্দা কর্মকর্তাকেও এ জন্য দায়ী করেন। বলেন, তারা ২৩ শে জানুয়ারি করোনা প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়া নিয়ে কোনো সতর্কতা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের সম্প্রচার মাধ্যম সিএনএন এবং এবিসির রিপোর্টে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্টের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা করোনা ভাইরাস সম্পর্কে ৩রা জানুয়ারিতেই তাকে জানিয়েছিলেন।