বঙ্গবন্ধুর আরেক খুনি রিসালদার মোসলেহউদ্দিনকে হস্তান্তর করেছে ভারত: ভারতীয় গণমাধ্যম

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরের শিরোনাম, ‘মুজিবের আর এক খুনিও কি এই বঙ্গে?’ এতে বাংলাদেশের গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে বলা হয়, আব্দুল মাজেদের মতো পরিচয় গোপন করে রিসালদার (বরখাস্ত) মোসলেহউদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে পশ্চিমবঙ্গে অবস্থান করছে। ফাঁসিতে চড়ার আগে জিজ্ঞাসাবাদে আরেক খুনি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) মাজেদ এ কথা জানিয়েছে।

রিপোর্টে বলা হয়, ভারতের গোয়েন্দাদের সহযোগিতায় মোসলেহউদ্দিনকে উত্তর চব্বিশ পরগনা আটক করা হয়েছে। আবার অন্য একটি সূত্রের বরাতে এই রিপোর্টে বলা হয়, মাজেদ আটক হওয়া মাত্রই নিজের মৃত্যু-সংবাদ ছড়িয়ে গা-ঢাকা দিয়েছে মোসলেহউদ্দিন।
ভারতের গোয়েন্দাদের একটি সূত্রের কথা উল্লেখ করে বলা হয়, লকডাউনের সময় ভারত থেকে মোসলেহউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে আনার ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে বলে ঢাকা থেকে ভারতের সাহায্য চাওয়া হয়। ভারতীয় গোয়েন্দারা ওই খুনিকে তাড়া করে সীমান্তের কোনও একটি অরক্ষিত এলাকা দিয়ে বাংলাদেশের গোয়েন্দাদের হাতে তুলে দিয়েছেন। তবে সরকারি ভাবে কিছুই স্বীকার করা হয়নি।
উত্তর ২৪ পরগনার একটি উপশহরে ইউনানি চিকিৎসক সেজে ভাড়া থাকছিলো মোসলেহউদ্দিন। নাম নিয়েছিলো সমীর দত্ত। অনেকের দাবি, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট এই মোসলেহউদ্দিনই গুলি করে হত্যা করেছিল শেখ মুজিবকে।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, ৩০ দিনের মধ্যে শেখ মুজিবুর রহমানের আরেক খুনিকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করলেন ভারতীয় গোয়েন্দারা। প্রকাশিত রিপোর্টের বরাত দিয়ে বলা হয়, কোনো এক সীমান্ত দিয়ে গত সোমবার রিসালদার মোসলেহউদ্দিনকে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মোসলেহউদ্দিনকে ভারতে আটকের বিষয়ে জানতে চাইলে গত সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘আমাদের কাছ থেকে কোনো স্পষ্ট ডিক্লারেশন পেয়েছেন? আমি তো শতভাগ কনফার্ম না হয়ে কিছু বলি না। আমার কাছে পুরোপুরি নিশ্চিত কোনো খবর নেই। তবে খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে।’