যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি ব্যারেল তেলের দাম ‘শূন্য’!

জ্বালানী তেলের বাজারে এমনটা আগে কখনও ঘটেনি। এবারে যুক্তরাষ্ট্রে উৎপাদিত তেল ব্যারেল প্রতি মাত্র ০.০১ মার্কিন ডলার অর্থাৎ ১ সেন্টেরও কম দরে বিক্রি হয়েছে।

সোমবার (২০ এপ্রিল) দিনের শুরুতে ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই) তেলের দাম ১ ডলারের নিচে নেমে যায়। তবে নিউইয়র্ক স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ১৫ মিনিটে দাম শূন্যতে গিয়ে ঠেকে। এসময় প্রতি ব্যারেল তেলের দাম হয় মাত্র ০.০১ ডলার। তেলের বাজারে এমন দরপতন আগে কখনও ঘটেনি।

করোনাভাইরাসের কারণে সারা বিশ্বে তেলের চাহিদা কমে যাওয়ায় অতিরিক্ত তেল সংরক্ষণ করতে হচ্ছে। তবে সংরক্ষণের সক্ষমতাও শেষের দিকে। সংরক্ষণাগারে চাপ বাড়ায় তেলের দামের এমন পতন ঘটলো।
গত ১২ এপ্রিল নিম্নমুখী চাহিদার সঙ্গে তাল মিলিয়ে উত্তোলন কর্তনে এক ঐতিহাসিক সমঝোতায় পৌঁছে ওপেক প্লাস। দৈনিক ৯৭ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন হ্রাস করার এ সমঝোতার মাধ্যমে প্রায় দুই মাস ধরে চলা সৌদি আরব ও রাশিয়ার মধ্যকার মূল্যযুদ্ধের অবসান হয়।

ওই সমঝোতার আওতায় উৎপাদন কর্তনের ফলে আগামী ১ মে নাগাদ বাজার থেকে ১০ শতাংশ তেল হ্রাস পাবে। তবে মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিশ্বে তেলের চাহিদা ইতিমধ্যেই প্রায় ২০ শতাংশ কমে গেছে। আর এতে উত্তোলনের পর অতিরিক্ত তেল মজুদ করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে। তবে মজুদের জন্য সংরক্ষণাগারগুলোর সক্ষমতাও শেষের দিকে।
সারাবাংলা/আইই