ভারতে পচা কলা কুড়িয়ে খাচ্ছেন ক্ষুধার্ত শ্রমিকরা

ক্ষুধার্ত বিদেশি শ্রমিকরা শেষকৃত্য সারতে আসা মৃতের পরিজনদের উচ্ছিষ্ট পচা কলা বেছে বেছে নিয়ে যাচ্ছেন। দেখা যাচ্ছে, স্তূপ হয়ে পড়ে থাকা কলা তারা কুড়িয়ে খাচ্ছেন।

ভারতে টানা ৪০ দিনের লকডাউন চলছে। এ সময় মানুষ কতটা ভয়াবহ পরিস্থিতিতে পড়েছে, তার প্রতিচ্ছবি হয়ে উঠেছে এমন দৃশ্য।

সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া রাজধানীর নিগমবোধ ঘাটের কাছের একটি শ্মশানের ছবিতে এ চিত্র ফুটে উঠেছে। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করতেই দুর্বিষহ হয়ে ওঠে শ্রমিকদের জীবন।-খবর এনডিটিভির

তার পর আরও ১৯ দিনের জন্য বাড়ল লকডাউনের মেয়াদ। কাজ হারিয়ে, অস্থায়ী বাসস্থান খুইয়ে দিশেহারা হয়ে উঠেছেন শ্রমিকরা।

ওদের কাছে মাথা গোঁজার জন্য বাড়ি নেই, রোজগারের জন্য কাজ নেই, খাবার জন্য অন্ন নেই। আরও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে জীবন।

মুখ ঢাকা বাধ্যতামূলক থুতু ফেলা নিষিদ্ধ: ভারতের স্বাস্থ্য গাইডলাইনে বলা হয়েছে– সব জনবহুল স্থান ও অফিসে এবং বিয়ে বা অন্ত্যেষ্টির মতো জমায়েতেও মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক।

একই সঙ্গে জানানো হয়েছে, জনবহুল স্থানে থুতু ফেলা জরিমানাযোগ্য এবং গুটখা, তামাক বা মদ বিক্রি কঠোরভাবে নিষিদ্ধ।

জনসমক্ষে থুতু ফেললে জরিমানা হবে, সব কাজের জায়গায় কর্মীদের শরীরের তাপমাত্রা মাপতে হবে এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে। কর্মক্ষেত্রে বা জনসমক্ষে সর্বদা মুখ ঢেকে রাখতে হবে।

জনসমক্ষে থুতু ফেললে জরিমানা হবে, সব কাজের জায়গায় কর্মীদের শরীরের তাপমাত্রা মাপতে হবে এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে।