একদিনে আক্রান্ত ২৬৬, মৃত্যু ১৫ জনের

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ও আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর ঘটনা বাড়ছেই। সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২৬৬ জন। একই সময়ে মারা গেছেন ১৫ জন। এই ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ৯ জন। আগের দিনের তুলনায় এদিন আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা কমলে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে। এর আগে একদিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এতজন মারা যাননি।
এ নিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো এক হাজার ৮৩৮ জনে। আর মৃতের সংখ্যা বেড়ে হলো ৭৫। করোনাভাইরাসে আকান্ত মোট ৫৮ জন সুস্থ হলেন দেশে।

শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) কোভিড-১৯ সংক্রান্ত স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে যুক্ত হয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এসব তথ্য জানান। তিনি জানান গত ২৪ ঘণ্টায় মোট দুই হাজার ১৯০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৬৬ জনের নমুনায় করেনাভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়া গেছে।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বিস্তার রোধ করতে একমাত্র উপায় লকডাউন কার্যকর করা। ইউরোপের অনেক দেশ লকডাউন কার্যকর করার মাধ্যমে সংক্রমণ কমাতে সক্ষম হয়েছে। তারা এখন লকডাউন শিথিল করার পথে আছে। আমাদেরও লকডাউন কার্যকর করতে হবে।
সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন। যারা লিফট ব্যবহার করেন, লিফটকে যথাযথভাবে স্যানিটাইজ করবেন। সাধারণ ছুটি থাকায় সবাই ঘরে অবস্থান করছেন। কিন্তু এরকম বন্দিদশায় মানসিক চাপ তৈরি হতে পারে। এ অবস্থায় টিভিতে বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান বেশি বেশি প্রচার হলে মানসিক চাপ কমবে আশা করি।

জাহিদ মালেক আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে এ পরিস্থিতিতে করণীয় সম্পর্কে নির্দেশনা দিচ্ছেন। আমরা করোনাভাইরাসের চিকিৎসার জন্য আরও হাসপাতালকে তৈরি করছি। নতুন আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের কাজ এগিয়ে চলেছে।

সারাবাংলা/এসবি/টিআর