করোনায় প্রবাসী কর্মী মারা গেলে পরিবার পাবেন ৩ লাখ টাকা

করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রবাসে বাংলাদেশের কোনো কর্মী মারা গেলে তার পরিবারকে তিন লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে সরকার। পাশাপাশি দুর্যোগময় মুহূর্তে দেশে ফেরা প্রবাসী কর্মীদের ঋণ দেওয়া হবে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে বুধবার (১৫ এপ্রিল) প্রবাসী কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিতে একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বুধবার (১৫ এপ্রিল) গণমাধ্যমে পাঠানো বার্তায় বলা হয়, এই দুঃসময়ে যারা দেশে ফিরছেন, ফেরা মাত্রই বিমানবন্দরে তাদেরকে প্রবাসী কল্যাণ ও শ্রম মন্ত্রণালয় পাচ হাজার টাকা করে দেবেন। যাতে দেশে ফিরে তাদের বাড়ি যেতে সুবিধা হয়। তবে তাদের বাধ্যতামূলকভাবে অবশ্যই ১৪ দিনের কোয়ারেনটাইনে থাকতে হবে।
বার্তায় আরও বলা হয়, এই দুঃসময়ে যে সকল প্রবাসী কর্মীরা দেশে ফিরছেন তারা যাতে কাজকর্ম করতে পারেন এজন্য তাদের জন্য ঋণের ব্যবস্থা করবে প্রবাসী কল্যাণ ও শ্রম মন্ত্রণালয়। ঋণের পরিমাণ ৫ থেকে ৭ লাখ টাকার মধ্যে হবে। কৃষিখাতে ঋণের টাকা বিনিয়োগ করার জন্য তাদেরকে উৎসাহিত করা হবে।

করোনাভাইরাসের আগ্রাসী আক্রমণে বিশ্বের একাধিক দেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের সুরক্ষা বিষয়ে বুধবার (১৫ এপ্রিল) আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয় বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বার্তায় জানান হয়। এর আগে, চলতি এপ্রিলেই এমন আরও দুইটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) তৃতীয় আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলমসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও দফতরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সারাবাংলা/জেআইএল/একে