করোনাভাইরাস মোকাবেলায় জনস্বাস্থ্যকে প্রাধান্য দিতে হবে,ব্যক্তিস্বার্থ নয়:অধ্যাপক আলী রীয়াজ

মঙ্গলবার ফেসবুকের এক লাইভ ভিডিও বার্তায় যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক বলেন, রাষ্ট্রের সার্বভৌম ব্যবস্থা দুর্বল হয়ে পড়েছে। ফলে দেশে করোনাভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। তবে সরকারকে উন্নয়নের ধারণা থেকে বেরিয়ে এসে মানুষকে বাঁচাতে হবে।

আলী রীয়াজ বলেন, মানুষের পুঁজিবিস্তার এবং মুনাফা অর্জনের মানবিক চাহিদা থেকে বেশি হওয়ার কারণে এবং গণতন্ত্রের মৌলিক বিষয়গুলোকে অস্বীকার করার কারণে বিশ্বে এই ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। মার্কেটকে একদম নিয়ন্ত্রণহীন করে ফেলা হয়েছে। রাজনৈতিক ভাবে ক্ষমতার অপব্যবহার করা হচ্ছে। যা দেশের অর্থনীতিকে ভয়াবহ পরিস্থিতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এই পরিস্থিতিকে সামলে নিতে সবাইকে একত্রিত হয়ে কাজ করতে হবে।

করোনার পরবর্তী বিশ্বটা কেমন হবে সে বিষয় নিয়ে তিনি বলেন, এ মহামারি রাজনৈতিক সীমানার মধ্যে থাকছে না। তা সহজেই প্রকট আকার ধারণ করছে। সকল রাষ্ট্র ব্যবস্থা মুনাফার অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। মানুষের বেঁচে থাকা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে গেছে। তিনি বলেন, অর্থনৈতিক ভিত্তি মজবুত করতে বাজারকে উন্মুক্ত করতে হবে। তবে বাজারকে ধরে রাখতে যোগ্য ব্যক্তিদেরকে কাজের সুযোগ করে দিতে হবে। যাতে সে তার সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে পারে। তবে সে ক্ষেত্রে রাষ্ট্রকে পাশে থাকতে হবে। সব গুরুত্বপূর্ণ সামাজিক প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে আসতে হবে। ব্যক্তি কেন্দ্রিক বাজারকে নিয়ন্ত্রণ করার মনোবৃত্তি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। সব ধরণের নীতিমালাগুলোকে মানতে হবে। স্যোসাল মার্কেটের বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, এই মহামারি আমাদের নতুন করে ভাববার সুযোগ করে দিয়েছে। ধারণা করা যাচ্ছে, বিশ্ব ব্যবস্থা আবার পুরানো অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে। এজন্য নীতি নির্ধারকদেরকে আলাদাভাবে চিন্তা করতে হবে। তিনি বলেন, গণস্বাস্থোর বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে। মানুষের সকল চাহিদা মেটাতে হবে। সে ব্যাপারে রাষ্ট্রকে এগিয়ে আসতে হবে। গণতান্ত্রিক অধিকারকে রক্ষা করতে হবে। সম্পাদনা: রাশিদুল