খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা জানালেন ড্যাব, আইনি প্রক্রিয়া দেখে কর্মসূচির সিদ্ধান্ত বিএনপির

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার শুনানী কাল। মামলায় দন্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে বুধবার সংবাদ সম্মেলন করেছে বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)।

সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মহানগর উত্তর ড্যাবের সভাপতি ডা. সরকার মাহবুব আহমেদ শামীম বলেন, খালেদা জিয়া এত অসুস্থ যে, তিনি কারও সাহায্য ছাড়া চলাফেরা, খাওয়া-দাওয়া এমনকি শরীরের তীব্র ব্যথার কারণে ভালোভাবে ঘুমাতে পারেন না। সুচিকিৎসা পেলে এই অবস্থা হতো না। তার কিছু হলে সরকারকে সম্পূর্ণ দায়ভার নিতে হবে।

খালেদা জিয়ার জামিন না হলে বিএনপি কী ধরনের কর্মসূচি দেবে? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী রিজভী বলেন, দেখি না আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) কী হয়? আমরা কতদিন অপেক্ষা করবো?

লিখিত বক্তব্যে খালেদা জিয়ার রোগ-ব্যাধি সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন ডা. সরকার মাহবুব আহমেদ শামীম। তিনি জানান, খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন ধরে Highly Active Deforming, Rheamatoid arthritis, Uncontrolled Diabetes Mellitus, Hypertension, Adhesive capsulitis, Recurrent hyponatraemia and রোগে ভুগছেন।

জেলখানায় সঠিক চিকিৎসা না পাওয়ায় এবং স্বাভাবিক পরিবেশ না থাকায় খালেদা জিয়ার বিভিন্ন জটিলতা দেখা দিয়েছে। এসব জটিলতার কারণে তার হাত এবং পায়ের ছোট ছোট জয়েন্টসহ শরীরের বিভিন্ন জয়েন্ট ফুলে গেছে। এতে তীব্র ব্যাথা অনুভূত হচ্ছে। ফলে জয়েন্টগুলো Stiff (শক্ত) এবং deformed (বাঁকা) হতে চলেছে; যা কিনা অচিরেই স্থায়ী রূপ ধারণ করতে পারে।

ডা. শামীম বলেন, সোমবার (২ ডিসেম্বর) চিকিৎসকরা বেগম খালেদা জিয়ার ওজন মাপার জন্য বার বার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু তীব্র ব্যাথায় তিনি বিছানা থেকে নামতে পারেননি। ব্যাথার কারণে তিনি ঘুমাতেও পারছেন না।