সুপ্রিম কোর্টের দ্বারে বরখাস্ত হওয়া ১৪ বিধায়ক

ভারতের কর্নাটকে রোববার আস্থা ভোটের ঠিক এক দিন আগে বিদ্রোহী ১৪ জন বিধায়ককে বরখাস্ত করে শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন বিধানসভার অধ্যক্ষ কেআর রমেশ। এ বার স্পিকারের এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন বরখাস্ত হওয়া ১৪ জন বিধায়ক। সোমবারই তারা শীর্ষ আদালতে আপিল করছেন।স্পিকারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যৌথ পিটিশন দাখিল করতে চলেছেন বরখাস্ত হওয়া বিধায়করা। তাদের যুক্তি, তারা পুনরায় তাদের ইস্তফা পেশ করেছিলেন ১১ জুলাই। কংগ্রেস ও জেডি(এস)-এর হুইপ জারির আগেই তারা ইস্তফা দিয়েছিলেন। স্পিকারের এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন বরখাস্ত হওয়া ১৪ জন বিধায়ক। সোমবারই তারা শীর্ষ আদালতে আপিল করছেন।

আচমকাই রোববার বেঙ্গালুরুতে স্পিকার রমেশ কুমার জানান, ‘১৩ জনের বিধায়ক পদ বাতিল করা হয়েছে।’ এমনকী কংগ্রেস বিধায়ক শ্রীমন্ত পাতিলেরও বিধায়ক পদও খারিজ হয়েছে। রয়েছেন কংগ্রেসের ১১ এবং জেডিএস-এর ৩ বিধায়ক। বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারস্বামীর আস্থা ভোটের দিন দলের হুইপ অগ্রাহ্য করে বিদ্রোহী বিধায়করা বিধানসভায় উপস্থিত না-থাকায় তাদের বিধায়ক পদের যোগ্যতা খারিজ করা হয়েছে বলে জানানো হয়।

তবে সেই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যৌথ পিটিশন দাখিল করতে চলেছেন বরখাস্ত হওয়া বিধায়করা। তাদের যুক্তি, তারা পুনরায় তাদের ইস্তফা পেশ করেছিলেন ১১ জুলাই। কংগ্রেস ও জেডি(এস)-এর হুইপ জারির আগেই তারা ইস্তফা দিয়েছিলেন।
<