‘ষড়যন্ত্রের চিঠি জাতীয় পরিষদে প্রকাশ করবে পাকিস্তান সরকার’

পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী বলেছেন, শনিবার জাতীয় পরিষদে, সরকারকে উৎখাত করতে বিদেশী ষড়যন্ত্রের প্রমাণের যে চিঠি তাদের কাছে আছে সেটি প্রকাশ করা হবে।

এ ব্যাপারে পাক তথ্যমন্ত্রী বলেন, সরকার জাতীয় পরিষদের সকল সদস্যের কাছে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে ‘বিদেশি ষড়যন্ত্রের’ প্রমাণ ও সাক্ষী উপস্থাপন করবে।

পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রীর কথা,  এরপরও যদি বিরোধী দলের সদস্যরা অনাস্থা ভোট আয়োজন করতে চায়, তখন পাকিস্তানের জনগণ ঠিক করবে কে কোথায় দাঁড়িয়ে আছে।

এদিকে ২ এপ্রিল পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এক সাক্ষাৎকারে বিদেশি কোনো একটি দেশের পাঠানো একটি চিঠির কথা উল্লেখ করে বলেছিলেন যে তিনি ক্ষমতায় থাকা পর্যন্ত ওই দেশ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এগিয়ে নিতে চায় না।

তার বিরুদ্ধে বিদেশি ষড়যন্ত্র চলছে এবং এর পরিপ্রেক্ষিতেই জাতীয় পরিষদে অনাস্থা প্রস্তাব এসেছে বলে দাবি ইমরানের।

বিষয়টি উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ বলেন, তদন্ত কমিশনের দায়িত্ব হবে বিদেশি চিঠির অস্তিত্ব প্রকাশ করা।

ওই চিঠিতে পাকিস্তানের শাসনক্ষমতার বিষয়ে হুমকি আছে কি না, কমিশন তাও তদন্ত করবে বলে জানান ফাওয়াদ।

তিনি আরও বলেন, ওই চিঠির সঙ্গে স্থানীয় কারা সংশ্লিষ্ট এবং কোথা থেকে এই ষড়যন্ত্রের শুরু কমিশন তা তদন্ত করবে।

পাক তথ্যমন্ত্রী দাবি করেন, তাদের কাছে থাকা গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী, পার্লামেন্টের আটজন সদস্য সরাসরি এ ষড়যন্ত্রে জড়িত আছেন।

তাছাড়া সুপ্রিম কোর্ট যে রায় দিয়েছেন, সেই রায়টি পুনর্বিবেচনা করার অনুরোধ জানিয়েছেন ফাওয়াদ চৌধুরী।

তিনি জানিয়েছেন, বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে সুপ্রিম কোর্টে আপিল করা হবে।

তাছাড়া তিনি জানিয়েছেন, শুক্রবার রাতে জাতির উদ্দেশে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা দেবেন ইমরান খান

সূত্র: দ্য ডন অনলাইন