ক্ষমতায় গেলে ইসরাইল-সৌদিতে অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করবেন করবিন

ক্ষমতায় গেলে দখলদার ইসরাইল ও সৌদি আরবে অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করার ইচ্ছার কথা জানিয়েছে ব্রিটেনের বিরোধী দল লেবার পার্টি।

নিজেদের নির্বাচনী নীতিনির্ধারণী ইশতেহারে এমন কথাই উল্লেখ করেছে বলে ইসরাইলি দৈনিক হারিৎসের খবরে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার দলটির প্রতিরক্ষা ও পররাষ্ট্র নীতি নিয়ে প্রকাশিত এক বিস্তারিত নথিতে এসব কথা বলা হয়েছে।

এতে জানা গেছে, ইয়েমেনে ব্যবহারের জন্য সোদি আরবে ও ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিকদের ওপর মানবাধিকার লঙ্ঘন করায় ইসরাইলে অস্ত্রবিক্রি অতিসত্বর স্থগিত করে দেয়া হবে।

এতে আরও বলা হয়, আমাদের অস্ত্র রফতানিতে এমন মৌলিক পরিবর্তন আনবো যে নিরাপরাধ বেসামরিক লোকজনের বিরুদ্ধে ব্যবহারের জন্য ব্রিটেনের নির্মিত অস্ত্র বিক্রির ক্ষেত্রে মন্ত্রীরা যাতে চোখ বন্ধ করে রাখতে না পারেন।

গত বছর ইসরাইলের কঠোর সমালোচনা করে একটি প্রস্তাব পাশ করেছে লেবার পার্টি এবং ক্ষমতায় গেলে ইহুদি রাষ্ট্রটিতে সব ধরনের অস্ত্র বিক্রি বন্ধের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিল।

চলতি বছরের শুরুতে ইসরাইলের কাছে অস্ত্র বিক্রি পর্যালোচনা করার আহ্বান জানিয়েছেন লেবার নেতা জেরেমি করবিন।

এর আগে দখলদারিত্ব ও নিপীড়নের দায়ে ইসরাইলকে বর্জনে সমর্থন জানিয়েছিলেন তিনি। এছাড়া হিজবুল্লাহ ও হামাসকে বন্ধু বলেছেন বলেও ডেকেছেন ইসরাইলি দৈনিকের খবরে জানানো হয়েছে।

তবে লেবার নেতা নির্বাচিত হওয়ার পর সব ইসরাইলি পন্য বর্জনের সিদ্ধান্ত বদলে ফেলেছেন করবিন। এখন কেবল অবৈধ বসতি স্থাপনের পণ্য বর্জনে সায় দিচ্ছেন।