শোকগ্রস্ত পরিবারে তরমুজ পাঠিয়ে পদত্যাগ করলেন জাপানি মন্ত্রী

সংসদীয় এলাকায় শোকগ্রস্ত একটি পরিবারে তরমুজ, কমলা, কাঁকড়া পাঠানোর অপরাধে পদত্যাগ করেছেন জাপানের বাণিজ্য বিষয়ক নতুন মন্ত্রী ইশু সুগাওয়ারা। অভিযোগ করা হয়েছে, ওইসব জিনিস বিলি করে তিনি নির্বাচনী আইন লঙ্ঘন করেছেন। মিডিয়ার রিপোর্টে বলা হয়েছে, ইশু সুগাওয়ারা তার নির্বাচনী এলাকা ওই পরিবারের কাছে দামি তরমুজ, কমলা, মাছের ডিম ও রাজকীয় জেলি পাঠিয়েছেন। এ ছাড়া ওই পরিবারকে তিনি ২০ হাজার জাপানি ইয়েন বা ১৫০ পাউন্ড প্রস্তাব করেছেন বলেও অভিযোগ আছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

জাপানের নির্বাচনী আইন অনুযায়ী, কোনো রাজনীতিকের নিজের নির্বাচনী এলাকায় ভোটারদের মধ্যে অর্থ দান করা নিষিদ্ধ। জাপানের সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন শুকান বুনশুন প্রথম ইশু সুগাওয়রার বিরুদ্ধে রিপোর্ট প্রকাশ করে। বলা হয়, কয়েক দিন আগে সুগাওয়ারার একজন সমর্থক মারা গেছেন।
তার পরিবারকে শান্তনা হিসেবে নিজের সচিবের মাধ্যমে ২০ হাজার ইয়েন প্রস্তাব করেছেন সুগাওয়ারা। তবে জাপানে কোনো শোকগ্রস্ত পরিবারকে সমবেদনা জানিয়ে অর্থ দেয়ার রীতি প্রচলিত আছে। একে ইংরেজিতে বলা হয় ‘ইনসেন মানি’। এ ছাড়া সুগাওয়ারার অফিস থেকে যেসব উপহার পাঠানো হয়েছে তার একটি তালিকা প্রকাশ করেছে ওই ম্যাগাজিনটি। এর মধ্যে রয়েছে কড মাছের ডিম, কমলাও। এ জন্য গ্রহিতার কাছ থেকে তিনি থ্যাংকস লেটারও পেয়েছেন বলে অভিযোগ আছে।

শুক্রবার এ অভিযোগের বিষয়ে সুগাওয়ারা বলেছেন, তিনি নির্বাচনী আইন লঙ্ঘন করেছেন কিনা তা এখনও নিশ্চিত নন। তবে তিনি পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তিনি আরো বলেছেন, আমার সমস্যা নিয়ে আমি ইচ্ছাকৃতভাবে পার্লামেন্টকে পশ্চাতে ফেলতে পারি না। ওদিকে উদ্ভূত ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। তিনি বলেছেন, সুগাওয়ারাকে নিয়োগ দেয়ায় এই দায় আমি বহন করছি। জাপানি জনগণের কাছে আমি গভীরভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।