রেট ব্রিটেন আজকের বিশ্বের সবচেয়ে রাজনৈতিক সঙ্কটাপন্ন দেশ!

মাসুদ রানা : এই মুহূর্তে রাজনৈতিকভাবে বিশ্বের সবচেয়ে সঙ্কটাপন্ন দেশ হচ্ছে ব্রিটেন। সঙ্কট দেখা দিয়েছে রাষ্ট্রের এক্সিকিউটিভ অর্গানের সাথে লেজিসল্যাটিভ ও জুডিশিয়ারির দ্বন্দ্বের কারণে। দ্বন্দ্বের মূলে আছে ব্রেক্সিট। পার্লামেন্টের আইন ও সুপ্রিম কোর্টের রায়ের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর কার্যত প্রদর্শিত অবজ্ঞা ও অশ্রদ্ধা যুক্তরাজ্যকে ক্রমশ একটি সঙ্কটের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এ সঙ্কটের নিরসন হতে পারে বরিস জনসনের প্রতি পার্লামেন্টে অনাস্থা পাস করিয়ে তাকে প্রধানমন্ত্রীত্ব থেকে প্রত্যাহার কিংবা তার ইচ্ছের কাছে পার্লামেন্টের নতিস্বীকার করার মাধ্যমে। পার্লামেন্টের মাতৃভূমি ব্রিটেনে যদি পার্লামেন্টের পরাভব ঘটে, ব্রিটেইনের সমস্ত গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান তাদের জীবনীশক্তি হারাবে আর এর নেতিবাচক-প্রভাব পড়বে বিশ্বে। তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ-পূর্বকালে আজকের বিট্রেইনের বরিস জনসন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ-পূর্বকালে জার্মানির এডলফ হিটলারের মতো পপুলিজমকে ব্যবহার করে গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানাদির প্রাণসংহারক একনায়ক হিসেবে উত্থিত হওয়ার চেষ্টা করছেন। হিটলার নানারূপে নানাদেশেই আবির্ভূত হয়েছেন ও হচ্ছেন। ফলে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ বাঁধলে, তার রূপ হবে বেনজির ভয়ঙ্কর!

নির্বাচিত মন্তব্য : মোশাররফ খান- অবক্ষয়ী বুর্জোয়া গণতন্ত্র ও একচেটিয়া পুঁজির আজকের এ যুগে বিশ্বের উন্নত অনুন্নত সকল দেশেই একনায়কতান্ত্রিক শাসকের উত্থান লক্ষ্যণীয়ভাবে দৃশ্যমান! রাজনীতি ও অর্থনীতির অনিবার্য আন্তঃসম্পর্কের কারণে অবকাঠামো উৎপাদনের উপায় সমূহের ওপর মুষ্টিমেয় ধনাঢ্য লোকের একচেটিয়া কর্তৃত্বের অনিবার্য প্রভাবের ফলে সমাজের উপরি কাঠামো সমূহের ওপরও মুষ্টিমেয় ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর কর্তৃত্ব উপলক্ষ্যিত হচ্ছে আজকের গোটা বিশ্বময়। আমার মতে, এ পরিস্থিতি মানব জাতির অতীত ইতিহাসের মতো হতে পারে, নব সৃষ্টির কোনো পূর্ব লক্ষণ বা ক্রান্তিকাল। ফেসবুক থেকে