বাংলাদেশ দূতাবাস কুয়েত এর অভ্যন্তরে একজন প্রবাসীর উপর দূতাবাস স্টাফের অসৌজন্যমূলক, অমানবিক আচরণের প্রতিবাদ – – কানেক্ট বাংলাদেশ

গত কয়েকদিন যাবৎ একজন কুয়েত প্রবাসীর সাথে বাংলাদেশ দূতাবাস কুয়েত এর একজন স্টাফের বাদানুবাদ ও অসদাচারণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ফেইসবুকে ভাইরাল হয়েছে, যা কানেক্ট বাংলাদেশ এর পরিকল্পনা পরিষদ ও কেন্দ্রীয় সমন্নয় কমিটির দৃষ্টিগোচর হয়েছে। কানেক্ট বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সমন্নয় কমিটি ও পরিকল্পনা পরিষদ একজন প্রবাসীর সাথে দূতাবাস স্টাফের এমন অসৌজন্যমূলক আচরণ এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে এবং দোষী স্টাফের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য দাবি জানাচ্ছে।

এই প্রেক্ষিতে কানেক্ট বাংলাদেশ কুয়েত চ্যাপ্টার এর সমন্বয়ক ও পরিকল্পনা পরিষদের সম্মানিত সদস্য জনাব মোহাম্মদ আলী জিন্নাহকে কুয়েত দূতাবাসে সত্ত্বর যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় তথ্যানুসন্ধানের অনুরোধ জানানো হয়। উপরন্তু, অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার প্রতিবাদ এবং সংশ্লিষ্ট স্টাফের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানানোর জন্যও তাঁকে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। তারই প্রেক্ষিতে জনাব মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ্ কুয়েতস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর ও দূতাবাস প্রধান জনাব আনিসুজ্জামান সাহেবের সাথে বিষয়টি নিয়ে কথা বলে বিস্তারিত জানতে চেয়েছেন। জনাব আনিসুজ্জামান সাহেবের ভাষ্যমতে যেই ব্যক্তিটি দূতাবাস স্টাফের সাথে বাদানুবাদ করতে দেখা গেছে, সেই ব্যক্তিটি কিছুদিন আগে দূতাবাসে আসেন নতুন পাসপোর্ট করার জন্য। কিন্তু; পাসপোর্ট করার জন্য প্রয়োজনীয় সবগুলো কাগজপত্র না থাকায় পাসপোর্ট অফিসার তাঁকে ফিরিয়ে দিয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে আসার জন্য বলেন।

তিনি বলেন যে, ঘটনার দিনে উনি দূতাবাসে আসেন এবং অত্যন্ত ক্ষুব্ধভাবে সিকিউরিটি নিয়ম অমান্য করে দূতাবাসের ভিতর প্রবেশ করেন। যার প্রেক্ষিতে সিকিউরিটির দায়িত্বে থাকা দূতাবাস স্টাফের সাথে বাদানুবাদ হয় এবং একপর্যায়ে অসৌজন্যমূলক আচরণে রুপ নেয় যা আপনারা ভিডিওতে দেখেছেন।

জনাব আনিসুজ্জামান আরো বলেন, দূতাবাস কার্যালয় বেশ কিছুদিন যাবত নতুন ভবনে স্থানান্তরের কারণে সবকিছু গুছিয়ে না উঠায়, এমনকি সি সি ক্যামরা লাগানোর কাজ শেষ না হওয়ায় দূতাবাস সিকিউরিটি কিছুটা কঠোরতা অবলম্বন করতে হয়েছে। যার কারনে প্রকাশিত ভিডিওর আগে পরে কি হয়েছে তা অবলোকন করা সম্ভব হয় নাই। তারপরও একজন প্রবাসীর সাথে দূতাবাস স্টাফের এমন অসৌজন্যমূলক আচরণ সরকারি চাকুরী বিধির পরিপন্থী বিধায় মান্যবর রাষ্ট্রদূতের নির্দেশনায় ঐ স্টাফের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

জনাব আনিসুজ্জামান সাহেব আরো বলেন, শুধু এ’ব্যাপারটা নয় বাংলাদেশ দূতাবাস কুয়েত এর কোন কর্মকর্তা বা কর্মচারী যদি কোন ধরনের অনিয়ম বা অসৌজন্যমূলক অসদাচারণ করেন তা দূতাবাসের নজরে আসলে অবশ্যই কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে কুয়েত প্রবাসীদেরকে তিনি আশ্বস্ত করেন।

কানেক্ট বাংলাদেশ এই ব্যাপারে তীক্ষ্ণ দৃষ্টি রাখছে ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার জোড় দাবি জানাচ্ছে।
(মতামতের জন‍্য ‘জনজীবন কিংবা তার সম্পাদক’ কোন ভাবেই দায়ী নয়।)
প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
বার্তা প্রেরক
অ্যাডভোকেট সিব্বির আহমেদ তালুকদার
সদস্য পরিকল্পনা পরিষদ
(দপ্তরের দায়িত্বে)