যে কারণে বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছিলো, সেই একই কারণে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে হবে

রোহিঙ্গাদের পক্ষে কথা বলার পূর্বে আপনার গৃহে একজন রোহিঙ্গাকে আশ্রয়
দিন। বাংলাদেশ সরকার ১০ হাজার একর বনভূমি উজাড় করেছে, ৬০ হাজার কোটি টাকা খরচ করেছে! স্থানীয় বাংলাদেশিদের জীবন বিপন্ন হয়েছে! আর কতো? আপনি যদি ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে রোহিঙ্গাদের দেখেন তাহলে আপনার উচিত হবে, অবিলম্বে রোহিঙ্গার জন্য আপনার নিজস্ব অর্থ খরচ করা, নিজের জমি দান করা, এগুলো করলে আল্লাহ আপনাকে প্রতিদান দেবে! আর, আপনি যদি এগুলো না করেন এবং সরকারকে চাপ দেন তাহলে আপনি একজন অর্গানিক শয়তান! আল্লাহর আদেশের বরখেলাপকারী। আপনি যদি মানবাধিকার কর্মী হন তাহলে নিজের আরাম-আয়েশের চিন্তা কম করে আপনার গৃহে একজন রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিন! এটি না করে শুধু সরকারের উপর দায় চাপালে আপনি একজন ভ-, আপনি একজন হিপোক্রেট, আপনি একজন প্রতারক।

আগামী দশ বছরে রোহিঙ্গাদের সংখ্যা হবে বিশ লাখ! তখন মায়ানমার বলবে, বাড়তি দশ লাখ বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করেছে তারা বাংলাদেশের নাগরিক! তাদের মিয়ানমার ফেরত নিতে বাধ্য না! এই কূটনৈতিক প্রশ্নের খ-ন করা সম্ভব নয়! যে কারণে বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছিলো সেই একই কারণে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে হবে। বিষয়টি অমানবিক হলেও! এখানে কোল্যাটারাল ড্যামেজ অনিবার্য। বিষয়টি যতো বিলম্ব হবে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ স্থিতিশীলতা ততোই বিপন্ন হবে। যে/যারা রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের অনেককে হিটলারের সঙ্গে তুলনা করছে সে/তারা না জেনেছে হিটলার, না জেনেছে রোহিঙ্গা! অন্যথায় এরা ভয়াবহ রকমের পিনাকীয় শয়তান। ফেসবুক থেকে