স্বাধীনতা দিবসেও কেন বন্দি কাশ্মীরের ৩ প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী, প্রশ্ন চিদম্বরমের

ভারতের সংবিধানের ৩৭০ ধারায় প্রাপ্য জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা খারিজ হওয়ার পরে গত ৬ আগস্ট থেকে গৃহবন্দি রয়েছেন তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লা, ওমর আবদুল্লা ও মেহবুবা মুফতি। স্বাধীনতা দিবসে তাই নিয়ে প্রশ্ন তুললেন দেশটির সাবেক অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম। স্বাধীনতা দিবসে কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশে বিস্ফোরক কটাক্ষ করে টুইট করলেন তিনি। তাঁর দাবি, এই দিনেও কী কারণে জম্মু ও কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর স্বাধীনতা খর্ব করা হয়েছে তার জবাব দিতে হবে কেন্দ্রকে। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশে বিস্ফোরক কটাক্ষ করে টুইটে তার দাবি, এই দিনেও কী কারণে জম্মু ও কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর স্বাধীনতা খর্ব করা হয়েছে তার জবাব দিতে হবে কেন্দ্রকে।

সংবিধানের ৩৭০ ধারায় প্রাপ্য জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা খারিজ হওয়ার পরে গত ৬ আগস্ট থেকে গৃহবন্দি রয়েছেন তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লা, ওমর আবদুল্লা ও মেহবুবা মুফতি। এদিন চিদম্বরম টুইট করেন, ‘গত ৬ অগস্ট থেকে কী কারণে জম্মু ও কাোশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে আটক রাখা হয়েছে? তাঁদের মধ্যে দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে কার্যত নির্জন কারাবাসে রাখা হয়েছে। একজনকে রাখা হয়েছে গৃহবন্দি। শুধু তাই নয়, কেন বিচ্ছিন্নতাবাদী এবং সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে সংগ্রামকারী রাজনৈতিক নেতাদের জেলবন্দি করা হয়েছে, তাই নিয়েও কেন্দ্রের উদ্দৈেশে প্রশ্ন করেছেন চিদম্বরম।

এর আগে সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, ন্যাশনাল কনফারেন্স পার্টির সভাপতি ফারুক আবদুল্লাকে গৃহবন্দি রাখা হলেও তাঁর ছেলে ওমর আবদুল্লাকে রাখা হয়েছে হরি নিবার প্যালেসে। পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টি প্রধান মেহবুবা মুফতিকে শ্রীনগরের চেশমা শাহি হাটে কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্যে রাখা হয়েছে।