ভারতে আর্থিক বৃদ্ধির হারে শীর্ষে পশ্চিম বাংলা, সবথেকে নীচে রয়েছে গোয়া

ভারতের পশ্চিম বাংলার অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র জানিয়েছেন ২০১৮-১৯ সালে রাজ্যটির অর্থবৃদ্ধির হার ১২.৫৮। যা ভারতের সমস্ত রাজ্যের মধ্যে সর্বোচ্চ। তারপরও এ রাজ্যের অর্থমন্ত্রী বলেন, ভারত চলেছে গভীর মন্দার মধ্যে দিয়ে। দেশটি ‘গভীর মন্দা’র সম্মুখীন। ঠিক সেই সময়ই অন্যদের থেকে এগিয়ে পশ্চিম বাংলা রাজ্য। সংবাদমাধ্যমকে অমিত জানিয়েছেন, ‘‘আমি আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি, ভারত সরকারের পরিসংখ্যান ও কর্মসূচি বাস্তবায়ন মন্ত্রকের সদ্য প্রকাশিত রাজ্যগুলির ২০১৮-১৯ সালের আর্থিক বৃদ্ধির তালিকা অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গের বৃদ্ধি দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ, ১২.৫৮ শতাংশ।” তালিকায় বাংলার পরেই রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। তাদের আর্থিক বৃদ্ধির হার ১১.০২ শতাংশ। এরপর বিহার ১০.৫৩ শতাংশ এবং তেলেঙ্গানা ১০.৫ রয়েছে খুব কাছাকাছি।

এরপর তিনি অভিযোগ করে বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার ‘‘পক্ষাঘাতগ্রস্ত” এবং তারা শিল্পপতিদের গ্রেফতারির হুমকি দিয়ে চলেছে, যদি তারা Corporate Social Responsibility (CSR)-এ ২ শতাংশ লাভ বিনিয়োগে ব্যর্থ হয়।

তিনি আরও বলেন, ‘‘ভারত গভীর মন্দার মধ্যে দিয়ে চলেছে। গত ৪৫ বছরের সর্বোচ্চ বেকারত্ব, গত পাঁচ বছরের হিসেবে সর্বনিম্ন আর্থিক বৃদ্ধির হার… দেশের শিল্পপতিদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে ভয়ের মনোব্যাধি।”

রাজ্যের অর্থমন্ত্রীর দাবি, নতুন প্রকল্পে‌ বিনিয়োগের পরিমাণ জুনে শেষ হওয়া ত্রৈমাসিক হিসেবে গত ১৫ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন।

তিনি আরও জানান, ‘‘জুন ত্রৈমাসিকে ঘোষিত নতুন প্রকল্প মার্চ ত্রৈমাসিকের থেকে ৮১ শতাংশ কম। গত বছরের এই সময়সীমার হিসেবে তা ৮৭ শতাংশ কম।” সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকোনমিতে (CMIE) বসে এই মন্তব্য করেন তিনি।