মিসিসিপি থেকে গ্রেপ্তার ৬৮০ অভিবাসীর ৩০০ জনকে ছেড়ে দিয়েছে ইমিগ্রেশন পুলিশ

অবৈধ হিসেবে চিহ্নিত করে মিসিসিপি অঙ্গরাজ্যের কৃষিখামার থেকে বুধবার ৬৮০ জনকে গ্রেপ্তার করেছিলো যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্রেশন এন্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট বিভাগ (আইসিই)। অভিযোগ ওঠে, গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিদের কাছ থেকে তাদের সন্তানদের আলাদা করে ফেলা হয়েছে। তুমুল সমালোচনার মুখে আজ ৩০০ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলে আইস কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। বিবিসি, রয়টার্স

অভিবাসীদের ব্যাপারে শুরু থেকেই প্রচণ্ড নেতিবাচক মনোভাব দেখিয়ে আসছে ট্রাম্প প্রশাসন। খোদ ডোনাল্ড ট্রাম্প বিষোদগার করেছেন ভিনদেশ থেকে এসে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারিদের প্রতি। সম্প্রতি এলপাসোতে বন্দুকধারীর তাণ্ডবে ২০ জন নিহত হওয়ার ঘটনার পরও ট্রাম্প স্প্যানিশ বংশোদ্ভুত মার্কিনীদের নিয়ে তির্যক মন্তব্য করেছেন। তার মতে, হামলার লক্ষ্য ছিলো স্প্যানিশ বংশোদ্ভুতরা। প্রেসিডেন্টের মন্তব্যে ক্ষুব্ধ হন তারা, ট্রাম্প এলপাসোর হামলায় আহতদের দেখতে গিয়ে বুধবার গণবিক্ষোভের মুখে পড়েন। এর আগে গত জুনে অভিবাসীদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেয়ার আভাস দেন প্রেসিডেন্ট। ধরপাকড় করা হবে বলে নিউইয়র্কসহ বিভিন্ন রাজ্যে অভিবাসীদের মনে আতংক ধরিয়ে দেয় ট্রাম্প প্রশাসন। তারই ধারাবাহিকতায় বুধবার মিসিসিপির সাতটি কৃষি খামারে অভিযান চালিয়েছিলো আইসিই। যথাযথ কাগজপত্র না থাকার অভিযোগে গণগ্রেপ্তার চালায় সেখানে।

যখনই রব ওঠে, গ্রেপ্তার করা মানুষগুলোকে তাদের সন্তানদের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে, জোর প্রতিবাদ তোলেন ডেমোক্রেটরা। এর পরিপ্রেক্ষিতে চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই ৩০০ জনকে ছেড়ে দেয় আইসিই। আর সংস্থার কর্মকর্তারা সাফাই গেয়ে বলেন, তারা বাচ্চাদের যথাযথ যত্ন নেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আইসিই’র মুখপাত্র ব্রায়ান কক্স বলেন, যাদের মুক্তি দেয়া হয়নি, তাদেরকে সংস্থার বন্দিশালায় নিয়ে যাওয়া হবে।