জিএসসি,র সাথে এমপি মোকাব্বির খানের মত বিনিময় সভা অনূষ্টিত

গ্রেটার সিলেট ডেভোলাপমেন্ট এবং উয়েলফেয়ার কাউন্সিলের সাথে সিলেট-২ আসনের এমপি মোকাব্বির খানের সাথে এক মত বিনিময় সভা অনূষ্টিত হয়। “জিএসসির” কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মতবিনিময় সভাটি অনূষ্টিত হয় ,। জিএসসি সাউথইস্টের উদ্দে‍্যাগে অনূষ্টিত এই মতবিনিময সভায় কেন্দ্রিয় নেতৃবৃন্দ,সাউথইস্ট এবং ইস্ট লন্ডনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহন করেন।

জিএসসির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনূষ্টিত এ মতবিনিময সভায় সভাপতিত্ত করেন সাউথইস্ট রিজিয়নের চেয়ারপারসন জনাব মোহাম্মদ ইছবাহ উদ্দিন এবং সঞ্চালনায় ছিলেন জনাব আব্দুল মালিক কুট্টি। সাউথইস্টের ভাইস চেয়ার জনাব মওলানা রফিক আহমদের কুরআন তেলাওতের মধ‍্য দিয়ে অনূষ্টান শুরু হয়।সংগঠনের কেন্দ্রীয় চেয়ারপারসন জনাব বারিষ্টার আতাউর রহমান ,পেট্রন কে এম আবু তাহের চোধুরী,কেন্দ্রীয় ভাইসচেয়ার জনাব মির্জা আসহাব বেগ,কেন্দ্রীয় ভাইসচেয়ার জনাব আব্দুল আজিজ ,কেন্দীয় নেতা জনাব আব্দুল মন্নান এবং সাউথইস্টের অন‍্যতম নেতা জনাব সূফি সূহেল মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

জনাব এমপি সাহেবকে ফুলের তোড়া দিযে স্বাগত জানানো হয়।মতবিনিময় সভার কারনে পরিচয় পর্বের সাথে সাথে উপস্থিত সবাইকে বলা হয় ,কোন দাবি দাওয়া থাকলে তুলে ধরার জন‍্য বলা হয় । অনেকেই অনেক দাবী দাওয়া তুলে ধরেন । যার মধে‍্য অন‍্যতম ছিল স্মার্ট কার্ড,ভোটাধিকার,সিলেট টু লন্ডন ফ্লাইট,বিমানবন্দরের নিরাপত্তাসহ আরোও অনেক কিছু।
সভায় লন্ডন প্রবাসী ৩ জনকে সিলেট জ্বল্লারপারের পাচভাই রেষ্টুরেন্টে আক্রমন করার তীব্র নিন্দা জানানো হয়। সন্ত্রাসিদেরকে অভিলম্বে গ্রেফতার করে স্বাস্তির জোর দাবি জানানো হয় ।প্রবাসীরা তাদের রক্ত ও ঘামের বিনিময়ে দেশের বাজেট পূরন করছে এবং বিনিময়ে কি পাচ্ছে লাঞ্চনা ও বঞ্চনা।দেশে গেলে প্রবাসীদের জোর নিরাপত্তা দেয়ার দাবী জানানো হয়।
দেশের বাহিরে প্রবাসী যত সংগঠন আছে তাদের মধে‍্য সবচেয়ে বড় সংগঠন হল জিএসসি এবং সংগঠনটি প্রবাসীদের দাবি দাওয়ার মধে‍্য অন‍্যতম দাবীগুলো নিয়ে এই সামাজিক সংগঠনটি ২৫ বতসর যাবত কাজ করে আসছে।
বাংলাদেশ থেকে সমাজসেবী ,রাজনীতিবিদ ,এমপি ,মন্ত্রী ,মেয়র,উপজেলা চেয়ারমেন ,এমনকি ইউনিয়ন চেয়ারমেনসহ যাহারাই আসেন না কেন এবং জিএসসি সবাইকে যথাযত মর্যাদা দেয়ার চেষ্টা করে এবং দিয়ে থাকে।
জবাবে জনাব এমপি সাহেব তার বক্তব‍্য তুলে ধরেন এবং বলেন আমি আমার সংসদ সদস‍্য নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথমবার সংসদে ডোকার সাথে সাথেই আমি আপনাদের সমস‍্যাগুলো তূলে ধরেছে।
আমি আবার ও সুযোগ ও সময় করে আপনাদের দাবীগুলো তূলে ধরব।তিনি বলেন আমিই একমাত্র এমপি ,ভোটের মাধ‍্যমে নির্বাচিত হয়েছি। বাকী সবাইতো রাতের আধারের ভোটের মাধ‍্যমে নির্বাচিত হয়েছেন। তাও ভোটের আগেরদিন রাত্রে।আমি জানি এবং আপনারা ও জানেন ৩০ ডিসেম্বর জনগন ভোট দিতে পারেনি।
পা‍্যলামেন্টে যোগ দিয়ে আমি বলেছি একজন বিরোত্তমের স্ত্রীকে জেলে রাখা যায়না। আপনারা সবাই জানেন জিয়াউর রহমান একজন বিরোত্তম ছিলেন এবং বঙ্গবন্ধু জিয়াউর রহমানে বিরোত্তমের এ খ‍্যাতি দিয়েছেন।

বাংলাদেশের ইদানিংকার বাজেটের ব‍্যাপারে বলতে গিয়ে জনাব খান বলেন,বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন আমার চারিদিকে শুধু চোরের দল। বঙ্গবন্ধু বেচে থাকলে এ জনহিতকর বাজেট পার্লামেন্টে আসতে দিতেন না।
তিনি আর ও বলেন আমি ও প্রবাসী এবং আমি সংসদে গিয়ে প্রবাসিদের দাবী দাওয়া আদায় করার চেষ্টা করতেছি।আমিও এই জিএসসির সদস‍্য ছিলাম।
সভায় অন‍্যঅন‍্যদের মধে‍্য উপস্থিত ছিলেন ইস্ট লন্ডনের চেয়ার জনাব আং গফুর,সাংবাদিক আলহাজ্ব ছমির উদ্দিন,জনাব কলা মিয়া.,সৈয়দ জিল্লুল হক,মগলানা রফিক আহমদ,মওলানা আং কুদ্দুছ,সালেহ আহমদ,এ রহমান,রুহুল আমিন,সাজ্জাদ মিয়া ,ফারুক মিয়া,খান জামাল,ওয়াহিদ আলী ,তাজ উদ্দিন,আমির উদ্দিন আহমদ,জগম্বর আলী,ইরফান আলী,আজম কান সিরাজুল ইসলাম,আজম আলী,শুকুর আলী,শহিদুল আলম চৌধুরী,কবি নজরুলসহ আরো ও অনেকেই।