কর্ণেল তাহের দিবস উপলক্ষে জেএসডি’র আলোচনা সভা

সিপাহি গণ-অভ্যুত্থানের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হলে দেশে স্বৈরতন্ত্র কায়েম হতোনা
……………………জেএসডি
জাতীয় সমাজতান্তিক দল-জেএসডি নেতৃবৃন্দ বলেছেন, সিপাহি গণ-অভ্যূত্থানের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হলে দেশে একের পর এক স্বৈরতন্ত্র কায়েম হতোনা। গণতন্ত্র ও নির্বাচন ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়তোনা। দেশ গুম, খুন, ধর্ষণ, লুটপাটের অবাধ রাজত্বে পরিণত হতোনা। কর্ণেল তাহেরের স্বপ্ন মোতাবেক গণতন্ত্র অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত হলে সর্বস্তরের মানুষই উন্নয়নের অংশীদার হতে পারতো। ১৯৭৬ সালের ২১ শে জুলাই কর্ণেল তাহেরকে বিচারের নামে প্রহসন চালিয়ে হত্যার মধ্যদিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নস্যাতের চেষ্টা করা হয়েছে। আজ জাতিকে স্বৈরাচার, অনাচার ও লুন্ঠন মুক্ত করতে হলে অবাধ গণতন্ত্র ও সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের কোন বিকল্প নেই। এর জন্য আজকের পেশাজীবী ও যুব সমাজকে কর্ণেল তাহেরের মত স্পর্ধা নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে তাহের হত্যার বিচার দাবী করেন। আজ বিকেল ৪ টায় কর্ণেল তাহের দিবস উপলক্ষে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জেএসডি আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্যদানকালে নেতৃবৃন্দ এ সকল কথা বলেন।
জেএসডি কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির অন্যতম সদস্য এ্যাড.খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেএসডি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ সিরাজ মিয়া, শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী, এস এম আনছার উদ্দিন, মোশারফ হোসেন, আবদুর রাজ্জাক রাজা, আবদুল্যাহ্ আল তারেক, কাজী আবদুস সাত্তার, আবুল হোসেন মিয়া, এ্যাড. জয়নাল আবেদিন, এ্যাড. সৈয়দা ফাতিমা হেনা, এস এম সামছুল আলম নিক্সন, নুরুল আবছার, মোশাররফ হোসেন, হাজী আখতার হোসেন ভূইয়া, আবদুল মোত্তালিব মাস্টার, আবুল মোবারক, মোশারফ হোসেন মন্টু, তৌফিক উজ জামান পীরাচা প্রমুখ।

বার্তা প্রেরক-
এস এম আনছার উদ্দিন
সাংগঠনিক সম্পাদক (দপ্তর ব্যবস্থাপনা)
মোবাইল- ০১৮১৭০৬০৩৪৩