পদ্মা সেতু নিয়ে ‘গুজব ছড়ানোয়’ চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার ১

শুক্রবার ভোর রাতে আনোয়ারা উপজেলার বারখাইন তৈলারদ্বীপ এলাকা থেকে আরমান হোসেন নামে ২০ বছর বয়সী ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি ওই এলাকায় পোলট্রি ফার্মের ব্যবসা করেন।

র‌্যাব-৭ চাঁন্দগাও ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, গত ৮ থেকে ১১ জুলাই আরমান তার ফেইসবুক পেইজে ‘পদ্মা সেতুতে রক্তের প্রয়োজন’ বলে গুজব রটিয়ে বিভিন্ন ধরনের পোস্ট দিয়ে আসছিলেন।

“বিষয়টি আমরা নজরদারিতে রেখেছিলাম। শুক্রবার ভোর রাতে তৈলারদ্বীপ এলাকায় অভিযান চালিয়ে আরমানকে আমরা গ্রেপ্তার করি।”

মেজর মেহেদী বলেন, আরমান তার ফেইসবুক পেইজে পদ্মা সেতুর ছবির পাশাপাশি রক্ত ও কাটা মাথার ছবি পোস্ট করে লিখেছেন- “এই মাত্র পাওয়া খবর- গুজব নয় সত্যি, রক্ত চায় পদ্মা সেতু, ঘর ছাড়া শতাধিক পরিবার, রক্তের অভাবে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে পদ্মা সেতুর কাজ, চারজন গায়েব- আতঙ্কে গ্রাম ছাড়া সাধারণ মানুষ, চুরির সময় হাতেনাতে ধরা…” এ ধরনের বিভিন্ন পোস্ট প্রচার করেছে। আরমানের বিরুদ্ধে আনোয়ারা থানায় তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান মেজর মেহেদী।

এর আগে একই অভিযোগে ভোলার চরফ্যাশন থেকে আবদুল শহিদ হাওলাদার (২৪) নামের আরেক যুবককে গ্রেপ্তার করার কথা জানিয়েছিল র‌্যাব।

পদ্মা সেতু নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরেই এ ধরনের প্রচার চলায় গত মঙ্গলবার একটি বিচ্ঝপ্তি দেয় সরকারের সেতু বিভাগ।

পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজে ‘মানুষের মাথা লাগবে’- এমন গুজব ও অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানানোর পাশাপাশি এ ধরনের অপপ্রচার চালালে আইনে শাস্তির বিধান থাকার বিষয়টি মনে করিয়ে দেওয়া হয় সেখানে।