ঢাকার পথে ৪ ভিভিআইপি

প্রায় একই সময়ে ঢাকা সফরে আসছেন চারজন ভিভিআইপি অতিথি। এর মধ্যে গতকাল মধ্য রাতে এসে পৌঁছেছেন দ্বীপরাষ্ট্র রিপাবলিকান মার্শাল আইল্যান্ডের রাষ্ট্রপতি ড. হিলদা হেইন। আজ বিকালে ঢাকা এসে পৌঁছবেন নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমা। এরপর সন্ধ্যায় আসবেন জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন। এখন তেমন কোনো পদে না থাকলেও বান কি মুন বাংলাদেশে ভিভিআইপি মর্যাদা পাবেন। এরপর আগামী শনিবার দ্বিপক্ষীয় সফরে আসবেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী লি নাক ইয়ুন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বাংলাদেশে অনুষ্ঠেয় ‘ঢাকা মিটিং অব দ্য গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপটেশন’ উপলক্ষে চার দিনের ঢাকা সফর করবেন মার্শাল আইল্যান্ডের রাষ্ট্রপতি ড. হিলদা হেইন। তার সফরসঙ্গী স্বামী কার্লসান হেইন। হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন। আগামীকাল দিনভর ঢাকা মিটিং অব দ্য গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপটেশন’ এর কর্মসূচিতে ব্যস্ত সময় কাটানোর পর বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ হবে মার্শাল আইল্যান্ডের রাষ্ট্রপ্রধানের। এদিন তিনি উখিয়ায় অ্যাডাপটেশন প্রজেক্ট পরিদর্শন করবেন। ড. হিলদা হেইন বৃহস্পতিবার দুপুরে থাই এয়ারওয়েজের ফ্লাইটে ঢাকা ত্যাগ করবেন। একই অনুষ্ঠান উপলক্ষে আজ (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় ঢাকা আসছেন জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব ও গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপটেশনের চেয়ারম্যান বান কি মুন। বান কি মুন সস্ত্রীক ঢাকা পৌঁছলে তাকে স্বাগত জানাবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন। তিনি বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। দুই দিনের সফর শেষে বান কি মুন বুধবার মধ্যরাতে ঢাকা ত্যাগ করবেন।

অন্যদিকে, আজ বিকালে ঢাকা আসছেন ডাচ্ রানী ম্যাক্সিমা। চার দিনের সফরে তিনি বাস্তবায়নাধীন বিভিন্ন প্রকল্পের অগ্রগতি নিয়ে জাতিসংঘের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন। পাশাপাশি পরিদর্শন করবেন নরসিংদীর পলাশ উপজেলার জিনারদী ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়, গাজীপুরের টঙ্গী দত্তপাড়ার ঝরনা ফেব্রিকস, রাজধানীর বনশ্রী এলাকার কুমিল্লা জেনারেল স্টোর ও কলাবাগানের একটি শপ। বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ হবে নেদারল্যান্ডসের রানীর। বৃহস্পতিবার তিনি সাক্ষাৎ করবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে। ডাচ্ রানীর সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. ফজলে কবির, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সাক্ষাৎ সূচি রয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দলের সঙ্গেও বিশেষ বৈঠক হবে রানী ম্যাক্সিমার। শুক্রবার তিনি ঢাকা ত্যাগ করবেন।

শনিবার বিকালে দ্বিপক্ষীয় সফরে বাংলাদেশে আসবেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী লি নাক ইয়ুন। তিন দিনের সফরে প্রথম দিন রাতে তিনি ডিনার করবেন বাংলাদেশে বসবাসরত কোরিয়ান নাগরিকদের সঙ্গে। পরদিন রবিবার সকালে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে জাতীয় বীরদের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর যাবেন সাভার ইপিজেড পরিদর্শনে। পরে তিনি মুগদাপাড়ায় নার্সিং ইনস্টিটিউট পরিদর্শন করবেন। কোরিয়ার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মধ্যাহ্ন ভোজের পর বাংলাদেশ কোরিয়া বিজনেস ফোরামে অংশ নেবেন। এদিন বিকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে হবে আনুষ্ঠানিক বৈঠক। রাতে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে গিয়ে সাক্ষাৎ করবেন। সোমবার সকালে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর পর ঢাকা ত্যাগ করবেন কোরীয় প্রধানমন্ত্রী।

উৎসঃ বিডি প্রতিদিন