সংবাদ প্রচারে কোথাও বিশেষ বাধা দেওয়া হচ্ছে না:তথ্য প্রতিমন্ত্রী

সংবাদ প্রচারে কোথাও বিশেষ বাধা দেওয়া হচ্ছে না বলে জানিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেছেন, ‘ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট, অনলাইন সবক্ষেত্রেই সর্বক্ষণ নজরদারি ও তদারকি করছি। কোথাও বিভ্রান্তকর, বিব্রতকর অসত্য বা মিথ্যা তথ্য প্রচার করলে সেক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করে থাকি। বিভ্রান্তিকর সংবাদটি প্রচার বা প্রকাশ হওয়া মাত্র আমাদের নজরে আসার সাথে সাথে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি, আগামীতেও করব।’

রোববার সংসদ অধিবেশনে মন্ত্রীদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারি দলের সদস্য আবু জাহিরের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘মিথ্যা, বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার বন্ধে ৫৭ ধারা ইতোমধ্যে পরিবর্তিত হয়েছে। অন্য সব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা, যেসব ক্ষেত্রে বিব্রতকর অসত্য ভুল তথ্য পরিবেশ করবে, সেক্ষেত্রে প্রচলতি আইনের ধারা অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করে থাকি।’

জাতীয় পার্টির দলীয় সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমানের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার সাংবাদিকদের কল্যাণে অত্যন্ত তৎপর ও আন্তরিক। এরই মধ্যে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট ফান্ডে ২০ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হয়েছে।’

সংবাদ প্রচারে কোনো বাধা আছে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘যে ৫৭ ধারার কথা বলা হয়েছে, আসলে এর মধ্য দিয়ে তথ্য প্রকাশ-প্রচারের ক্ষেত্রে বিশেষ বাধা আছে বলে মনে করি না।’

জয়েন্ট স্টক কোম্পানির মাধ্যমে সংবাদপত্র প্রকাশের সিদ্ধান্ত হয়েছে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘জয়েন স্টক কোম্পানির পৃষ্ঠপোষকতায় বা সহযোগিতায় পত্রিকা বা সংবাদপত্র প্রকাশের কোনো সিদ্ধান্ত এই মুহূর্ত পর্যন্ত গ্রহণ করা হয়নি। কোনো আবেদন প্রস্তাবনা করলে প্রয়োজনীয় আলোচনা করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব।’