সেতু মন্ত্রীর জানা উচিত:ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে ৪০ কিলোমিটার যানজট

সকাল থেকেই ঢাকা-টাঙ্গাইল এবং ঢাকা-সিরাজগঞ্জ মহাসড়কে ভয়াবহ দুর্ভোগের শিকার হাজার হাজার ঘরমুখো মানুষ। দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে যানজট। তাতে বাড়ছে মানুষের দুর্ভোগ। তবু ওই যে নাড়ির টান! সেই টান তাদেরকে প্রত্যাশায় ধরে রেখেছে কখন দেখা পাবেন গ্রামে ফেলে আসা স্বজনের মুখ। তার সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করবেন। এই হাসির জন্য, সবার সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগির জন্য, অধীর আগ্রহে অপেক্ষার পথযাত্রা তাদের। কিন্তু সকাল থেকেই ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানবাহনের ৪০ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়েছে। মিডিয়ার খবর অনুযায়ী, বঙ্গবন্ধু সেতুতে অত্যাধিক গাড়ির চাপে সকাল ৬টা ১৫ মিনিটে সেতুর পূর্বপ্রান্তে সড়ক বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ।
ফলে এই যানজট সৃষ্টি হয়। অন্যদিকে ঢাকা-সিরাজগঞ্জ মহাসড়কে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়েছে। এতে রাস্তায় যে ভয়াবহতা সৃষ্টি হয়েছে তাতে হাজার হাজার মানুষ আটকা পড়েছেন। বঙ্গবন্ধু সেতু (পূর্ব প্রান্ত)-এর কন্ট্রোল রুমের তথ্য মতে, যানবাহনের প্রচ- চাপে সকাল ৬টা ৩০মিনিট থেকে ৯টা ১৫মিনিট পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে যান চলাচল ধীর গতির ছিল।
টাঙ্গাইলের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সাজেদুল ইসলাম মিডিয়াকে বলেছেন, সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে যান চলাচলের জন্য সেতু খুলে দেয়া হয়েছে। কিন্তু এতে মহাসড়কে যান চলাচল অত্যন্ত ধীর গতিতে শুরু হয়।