সারাদেশে ১ মাসে ১৬৮ জন হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন:বিএইচআরসি

গত এক মাসে সারাদেশে ১৬৮ জন হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন বলে একটি মানবাধিকার সংস্থা হিসাব দিয়েছে। তারা বলছে এই হত্যাকাণ্ডগুলোর পেছনে যেমন সামাজিক কারণ ছিল তেমনি রাজনৈতিক কারণেও বেশ কয়েকজন নিহত হয়েছেন। ডেইলি স্টার

বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস কমিশন (বিএইচআরসি) তাদের মাসিক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে। বিভিন্ন জেলা, উপজেলা, পৌরসভা শাখার মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্যের সঙ্গে সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবর থেকে তথ্য নিয়ে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে বলে তারা জানায়। ইন্টারন্যাশনাল হিউম্যান রাইটস কমিশন এ কাজে তাদের সহায়তা করেছে।

হত্যাকান্ডের শিকার ১৬৮ জনের মধ্যে পারিবারিক কলহের জের ধরে নিহত হয়েছেন ২০ জন। যৌতুকের বলি হয়েছেন দুই জন। সামাজিক কারণে প্রাণ গেছে ৪২ জনের ও চার জন রাজনৈতিক সহিংসতায় নিহত হয়েছেন। এর বাইরে একই সময়ের মধ্যে বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে মারা গেছেন ২৯ জন আর ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ হত্যা করেছে সাত জনকে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিএইচআরসি আরও বলেছে, গত এক মাসে সড়ক, রেল ও নৌপথে দুর্ঘটনায় মারা গেছেন আরও ২২১ জন। মানবাধিকার সংস্থাটির হিসাব অনুযায়ী, হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে চিকিৎসকদের অবহেলায় প্রাণ গেছে প্রায় আট জনের। অপহরণের পর হত্যাকান্ডের শিকার হয়েছেন পাঁচ জন। গুপ্তহত্যার শিকার হয়েছেন নয় জন। সাত জনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় ও ৩৫ জনের মৃত্যুর কারণ রহস্য থেকে গেছে।

তাদের হিসাব বলছে, গত এক মাসে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৬৯ জন। যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন নয় জন নারী। যৌতুকের দাবিতে নির্যাতিত হয়েছেন দুজন ও এক জন এসিড হামলার শিকার হয়েছেন। কর্তব্যরত দুজন সাংবাদিকের ওপর হামলা হয়েছে এই সময়ের মধ্যে। এ ধরনের ঘটনা বৃদ্ধি পাওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বিএইচআরসি বলেছে, দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতির কারণে এ ধরনের হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে।